শিরোনাম :
‘জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে প্রথমবারের মতো চার বাংলাদেশী নারী বিচারকের অংশগ্রহণ’ ড্যাপ বাস্তবায়নে রিহ্যাব ও বিএলডিএ-এর সুপারিশ পর্যালোচনায় ওয়ার্কিং কমিটি গঠন: এলজিআরডি মন্ত্রী দেশের ইমেজ সবার আগে : প্রধান বিচারপতি সোহরাওয়ার্দীর সাবেক পরিচালক ডা. উত্তমের লাইসেন্স বাতিল ও সরকারি টাকা ফেরত চেয়ে আইনী নোটিশ ৭ মার্চের ভাষণ গেরিলা যুদ্ধের প্রস্ততি, রাজনীতির নির্দেশনার দলিল: দুদক চেয়ারম্যান ৭ই মার্চ বাঙালি জাতির জন্য অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণঃ ডিএসসিসি মেয়র নৃত্যশিল্পী ইভানের বিরুদ্ধে তদন্ত প্রতিবেদন ২৪ মার্চ ‘৭ দিনের মধ্যে বিটিআরসিকে দুদক কর্মকর্তার ‘ঘুষ দাবির’ কললিস্ট দাখিলের নির্দেশ’ কুড়িগ্রামের সাবেক ডিসিসহ সাংবাদিক নির্যাতনে জড়িতদের বিরুদ্ধে মামলা চলবে: সুপ্রমিকোর্ট প্রীতি ক্রিকেট ম্যাচে, পার্লামেন্ট মেম্বার্স ক্লাবকে হারিয়ে ডিএনসিসির জয় লাভ ঐতিহাসিক ৭ মার্চ ও ১৭ মার্চ বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনে ডিএসসিসিতে নানা আয়োজন দেশে করোনায় আরো ১০ জনের মৃত্যু এবং নতুন শনাক্ত ৫৪০ হুজির অপারেশন শাখার প্রধানসহ ৩ আসামি ৩ দিনের রিমান্ডে প্রয়োজনে জমি অধিগ্রহণ করে প্রতিটি ওয়ার্ডে খেলার মাঠ করা হবেঃ মেয়র তাপস স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে ডিআরইউ’র মাসব্যাপী কর্মসূচি সাংবাদিক শাওনের রোগমুক্তির জন্য দোয়া কামনা ৭ মার্চ সারাদেশে ৬৬০ থানায় একযোগে পুলিশের অনুষ্ঠান থাকবে: আইজিপি শিগগিরই ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সংশোধন হচ্ছে: আইনমন্ত্রী ব্রাহ্মণবাড়িয়া আইনমন্ত্রীর উপস্থিতিতে ২ মেয়র প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষ এবার মৃত ব্যক্তির ব্যাংকের টাকার পাওনাদার নিধারণী মামলা আপিল বিভাগ
সোমবার, ০৮ মার্চ ২০২১, ০৫:২২ পূর্বাহ্ন

সংসদে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী, রাজাকারের তালিকায় সন্দেহ নেই

দূরবীণ নিউজ ডেস্ক:
রাজাকারের তালিকায় যাদের নাম গিয়েছে তারা সক্রিয় ছিল কিনা তা যাচাইয়ের ব্যাপার বলেছেন, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাজ্জেম হক। তিনি বলেন উনাদের নাম যে তালিকাতে আছে তাতে কোনো সন্দেহ নেই। সমস্ত ডকুমেন্টারি এভিডেন্স আছে।

সংসদে প্রশ্নোত্তরে বৃহস্পতিবার (১৬ জানুয়ারি) তিনি আরো বলেন, এগুলো দেখাশুনা ও পরীক্ষা নিরীক্ষা করে আমার যে অভিজ্ঞতা হয়েছে, তখনকার মেম্বার ও চেয়ারম্যানদের কাছে তালিকা চাওয়া হলেছিল। তারা হয়তো তাদের অজ্ঞাতে নাম দিয়ে দিয়েছে। সেই জন্যই এই বিভ্রান্তি সৃষ্টি হয়েছে।

বিকালে প্রশ্নোত্তর পর্বে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রনালয় কর্তৃক সম্প্রতি প্রকাশিত এবং পরে বাতিলকৃত রাজাকারের তালিকা সম্পর্কিত প্রশ্নের জবাব দেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী। এই সম্পর্কিত একটি লিখিত বক্তব্যে মন্ত্রী তালিকার ব্যাপার নিজ মন্ত্রনালয়ের কোন দায়িত্ব না থাকার দাবি করে শুধু স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের তালিকা প্রকাশ করার কথা জানালে তিনজন সংসদ সদস্য ক্ষুব্দ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করে প্রশ্ন করেন।

সাবেক স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী ও বর্তমানে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রনালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সদস্য সরকারি দলের রফিকুল ইসলাম বীরোত্তম প্রশ্ন করতে গিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, আমি মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রীর বক্তব্যের সাথে দ্বিমত পোষন করছি। প্রকাশ করার কারণে মন্ত্রনালয়ের দায় অবশ্যই আছে।

কে দিয়েছে সেটা জানিনা। না হয়তো স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ই সেই তালিকা প্রকাশ করতে পারতো। তিনি প্রকাশ করেছেন, তাকে দায়িত্ব নিতে হবে। উনি এখন পর্যন্ত রাজাকারের সঠিক কোন তালিকা প্রকাশ করতে পারেননি। আমার ধারণা তিনি আর পারবেন না। ৫ বছর ধরে রাজাকারের তালিকা দেয়ার কথা বলে আসছেন কিন্তু এখন পর্যন্ত পারেননি, আর হয়তো পারবেন না। আমার কথা হচ্ছে সঠিক যে তালিকা আছে উনি সেটা প্রকাশ করুন।

জবাবে মন্ত্রী বলেন, আমরা সংসদে বলেছিলাম আমরা কোনো তালিকা তৈরী করবোনা। যে তালিকা আছে সেটা প্রকাশ করবো এবং যথযথ তাই হয়েছে। আমরা যেটা পেয়েছি সেটা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ও প্রণয়ন করেনি। তাদের কাছে যা সংরক্ষিত ছিল সেখান থেকে যে তালিকা আমাদেরকে সরবরাহ করা হয়েছে তাই আমরা প্রকাশ করেছি।

আমি আর কোনো ডিফেন্সে যাচ্ছিনা, এইটুকু বলতে চাই, রাজাকারের তালিকায় যাদের নাম দিয়েছে তারা সক্রিয় ছিল কিনা তা যাচাইয়ের ব্যাপার।

উনাদের নাম যে তালিকাতে আছে তাতে কোনো সন্দেহ নেই। সমস্ত ডকুমেন্টারি এভিডেন্স আছে। এগুলো দেখাশুনা ও পরীক্ষা নিরীক্ষা করে আমার যে অভিজ্ঞতা হয়েছে, তখনকার মেম্বার ও চেয়ারম্যানদের কাছে তালিকা চাওয়া হলেছিল। তারা হয়তো তাদের অজ্ঞাতে নাম দিয়ে দিয়েছে। সেই জন্যই এই বিভ্রান্তি সৃষ্টি হয়েছে। তবে ভবিষ্যতে যাচাই বাছাই করেই তালিকা প্রকাশ করা হবে।

তার আগে মোজাম্মেল হোসেন রতন এক সম্পূরক প্রশ্ন করতে গিয়ে বলেন, তালিকা প্রকাশের দায়িত্ব মন্ত্রনালয়ের ওপর বর্তায়। সঠিক তালিকা ২৬ মার্চের আগে প্রকাশ করা হবে কিনা জানতে চান তিনি।

জবাবে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী বলেন, প্রকাশিত তালিকার জন্য দু;খ প্রকাশ করে সেটি প্রত্যাহার করেছি। ভবিষ্যতে যাতে কোনো রকরেম ভুল না হয় সকলের সহযোগিতা নিয়ে তালিকা প্রকাশ করবো।

ঐক্যফ্রন্টের সুলতান মোহাম্মদ মনসুর প্রশ্ন করতে গিয়ে বলেন, আমার জানামতে এবং মুক্তিযুদ্ধের একজন সংগঠক হিসেবে জানি, পাকিস্তানের সামরিক বাহিনী একটি প্রজ্ঞাপনের মাধ্যমে তৎকালনি ইপিআরে যারা ছিল তাদেরকে রাজাকার হিসেবে ব্যবহারে প্রজ্ঞাপন জারি করেছিল।

যারা পূর্ব পাকিস্তান আনসারে ছিল তারা রাজাকার। কিন্তু ৫০ বছরে যখন আমরা তখন এসে জাতির মধ্যে বিভ্রান্তি সৃষ্টি যেন না করা হয়। প্রধানমন্ত্রীও বলেছেন অনেক রাজাকার আমাদের মুক্তিযুদ্ধের পথ দেখিয়েছিল। দিনের বেলায় পাকিস্তানী সামরিক বাহিনীর সাথে থাকতো আর রাতে মুক্তিযোদ্ধাদের সামরিক বাহিনী কোথায় আছে পথ দেখাতো। মুজিব বর্ষ পালনের এই সময়ে বিভ্রান্তিকর এমন কিছু করতে যেন মন্ত্রী না যান।

জবাবে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী বলেন, তিনি প্রশ্ন করেননি। উপদেশ দিয়েছেন। উনার উপদেশ মনে রাখবো। অবশ্যই বিবেচনায় নেব।

তার আগে মোঃ ফরিদুল হক খান দুলালের (জামালপুর-২) লিখিত প্রশ্নের জবাবে মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী বলেন, রাজাকারের তালিকা মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় থেকে প্রণয়ন করা হয়নি। মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়য়ের চাহিদার প্রেক্ষিতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালযয়ের জননিরাপত্তা বিভাগ হতে ১০ হাজার ৭৮৫জন রাজাকার-আলবদর-আলশামস এবং স্বাধীনতা বিরোধীদের একটি তালিকা এ মন্ত্রণালয়ে প্রেরণ করে।

প্রাপ্ত তালিকা হুবহু মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়। যেহেতু মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় উক্ত তালিকা প্রস্তুত করেনি সেহেতু প্রশ্ন উত্থাপিত বিষয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণায়ে ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারে।#


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


অনুসন্ধান

করোনা আপডেট

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
সুস্থ
মৃত্যু
সূত্র: আইইডিসিআর

বিশ্বে

আক্রান্ত
১১৬,৩৫১,৩৯৬
সুস্থ
৬৫,৮৩০,৬৪৫
মৃত্যু
২,৫৮৫,৯১৯

.