সর্বশেষঃ
বিভিন্ন হাসপাতালে আরো ১৬৩ জন ডেঙ্গু রোগী ভর্তি হয়েছে নোয়াখালীতে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে একই পরিবারের ৪ জনের মৃত্যু রাজধানীর চন্দ্রিমায় জিয়ার লাশের কোনো প্রমাণ নেই : ড. হাছান মাহমুদ কমনওয়েলথের সহায়তায় রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের সঙ্কট নিরসন সম্ভব : পররাষ্ট্রমন্ত্রী সু চির বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ আনতে যাচ্ছে সামরিক জান্তা ক্রিকেটে বাংলাদেশকে হারিয়ে জয়ে পেয়েছে আফগানিস্তান অর্থ আত্মসাতের মামলায় ৩ দিনের রিমান্ডে ই-কমার্স ইভ্যালির চেয়ারম্যান ও এমডি করোনায় নাজিরা বাজার মাতৃসদনের ডা. কৌশিকি’র মৃত্যুতে মেয়র তাপসের শোক ডেঙ্গুর ভয়া বহতা, নগরবাসী দিশেহার, মেয়র ও কাউন্সিলরা কোথায় ! : সচেতন নাগরিক সমাজ আফগানিস্তানের ৮১ নারী ফুটবলার পাকিস্তানে আশ্রয় নিলেন
শনিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:১২ পূর্বাহ্ন

শাজাহান খানের বিরুদ্ধে ইলিয়াস কাঞ্চনের ১০০ কোটি টাকার মানহানী মামলা

দূরবীণ নিউজ প্রতিবেদক :
পরিবহন শ্রমিক নেতা, সাবেকমন্ত্রী শাজাহান খান এমপির বিরুদ্ধে মানহানীর অভিযোগে ঢাকার প্রথম যুগ্ম জেলা জজ আদালতে ১০০ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে মামলা দায়ের করেছেন নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা) এর প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন।

বুধবার (১২ ফেব্রুয়ারি) দায়েন করা মামলা নং- ০৯/২০২০। আদালতে ইলিয়াস কাঞ্চনের পক্ষে মামলাটি দায়ের করেন বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের এডভোকেট মোঃ রেজাউল করিম। আর গণমাধ্যমকে সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে নিসচা’র যুগ্ম মহাসচিব লিটন এরশাদ মামলা দায়েরের বিষয়টি জানান।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ্ করা হয়েছে, গত বছর ২০১৯ সালের ৮ ডিসেম্বর পরিবহন শ্রমিক নেতা শাজাহান খান এমপি নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে একটি অনুষ্ঠানে নিরাপদ সড়ক চাই (নিসচা) এর প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান চিত্রনায়ক ইলিয়াস কাঞ্চন এবং নিরাপদ সড়ক চাইসহ তাঁর পরিবারের সদস্যদের নিয়ে নির্লজ্জ মিথ্যাচার করেছেন। যা অসত্য, বানোয়াট ও উদ্ভট কিছু প্রসঙ্গ টেনে ইলিয়াস কাঞ্চনের চরিত্র হরণের চেষ্টা চালিয়েছেন।

ওইদিন শ্রমিক নেতা শাজাহান খান বলেছিলেন- ‘ইলিয়াস কাঞ্চন কোথা থেকে কত টাকা পান, কি উদ্দেশ্যে পান, সেখান থেকে কত টাকা নিজে নেন, পুত্রের নামে নেন, পুত্রবধূর নামে নেন সেই হিসেবটা আমি জনসম্মুখে তুলে ধরবো’- যা বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে।

শাহজাহান খানের এমন মিথ্যাচারে যেহেতু সেই সময় ইলিয়াস কাঞ্চন দেশের বাইরে অবস্থান করছিলেন তখন নিরাপদ সড়ক চাই’র পক্ষ থেকে এই তাৎক্ষণিক প্রতিবাদ জানিয়ে এই মিথ্যা বক্তব্য প্রত্যাহারের জন্য ২৪ ঘন্টার আল্টিমেটাম দেয়া হয়। যা সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত হয়।

কিন্তু শাজাহান খান তাঁর এই বক্তব্য প্রত্যাহার এবং ক্ষমা প্রার্থণা না করায় নিসচা চেয়ারম্যান ইলিয়াস কাঞ্চন ১০ ডিসেম্বর ২০১৯ রাতে দেশে ফিরেই পরদিন ১১ ডিসেম্বর ২০১৯ জাতীয় প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে নিজের বক্তব্য তুলে ধরেন এবং আবারও শাজাহান খানকে ২৪ ঘন্টার আল্টিমেটাম দেন এই মিথ্যা বক্তব্য প্রত্যাহার করে ক্ষমা প্রার্থণার জন্য।

সংবাদ সম্মেলনে সেদিন ইলিয়াস কাঞ্চন জাতির উদ্দেশ্যে বলেছেন, তিনি (শাজাহান খান) এইসব মানহানীকর কথা বলেছেন আমাকে হেয় প্রতিপন্ন করার জন্য।

সংবাদ সম্মেলনে ইলিয়াস কাঞ্চন সেদিন নিজের, পরিবারের সদস্যদের জীবনের নিরাপত্তা নিয়েও শঙ্কা ব্যক্ত করেন।

ইলিয়াস কাঞ্চন সেদিন প্রশ্ন রেখে বলেন, আমি যখন দেশের বাইরে ছিলাম তখন কেন এসব প্রশ্নের অবতারণা। আমি মনে করি এটা পেছন থেকে ছুরিকাঘাতের সামিল। যদি সেই সৎসাহস থাকে তাহলে সামনে এসে প্রমাণ নিয়ে বসুন।

কিন্তু তা না করে অসত্য তথ্য উপস্থাপন করে তিনি নিজেকে জাহির করতে চাইছেন। স্বজন হারিয়ে সকলের সহযোগিতায় ২৭ বছর ধরে আন্দোলন করছি আমি। কিন্তু এখানে কেন আমার পরিবারকে টেনে আনা হয়েছে। যেহেতু টেনে আনাই হয়েছে শাজাহান খান সাহেবের দায়িত্ব হলো এর সপক্ষে প্রমাণ হাজির করা। নতুবা ক্ষমা চাওয়া। আর তা না হলে আইনের পথে হাঁটতে বাধ্য হবো।

কিন্তু আজ অবধি শাজাহান খান তার বক্তব্যের সপক্ষে কোন প্রমাণ জাতির সামনে হাজির করতে পারেন নি এবং ক্ষমাও চাননি। যে কারণে নিজের অবস্থান অনুযায়ী বিশেষ করে তিনি দুর্নীতির যে মিথ্যা অপবাদ দিয়েছেন তা আমি বহন করতে পারিনা। যে কারণে আমাকে জাতির সামনে বিষয়টি পরিস্কার করতে আদালতের আশ্রয় নিতে হলো। আমরা চাই প্রকৃত সত্য বেরিয়ে আসুক। # প্রেস বিজ্ঞপ্তি


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


অনুসন্ধান

নামাজের সময়সূচী

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৪:৩২ পূর্বাহ্ণ
  • ১১:৫৭ পূর্বাহ্ণ
  • ৪:১৯ অপরাহ্ণ
  • ৬:০৬ অপরাহ্ণ
  • ৭:২০ অপরাহ্ণ
  • ৫:৪৪ পূর্বাহ্ণ

অনলাইন জরিপ

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘বিএনপি এখন লিপসার্ভিসের দলে পরিণত হয়েছে।’ আপনিও কি তাই মনে করেন? Live

  • হ্যাঁ
    20% 1 / 5
  • না
    80% 4 / 5