সর্বশেষঃ
২৪তম বিসিএস প্রশাসন কার্যনির্বাহী কমিটির সভাপতি নাছির উদ্দিন সম্পাদক আবদুল হামিদ: এ কমিটিকে অভিনন্দ ঢাবির অধ্যাপিকা সাইদা হত্যার পেছনে নগদ টাকার লোভ খুনির এবারও পুরান ঢাকার আকাশে উড়েছে রং-বেরঙের ঘুড়ি ঢাকা দক্ষিণের মেয়র তাপস, তার স্ত্রী ও গানম্যান করোনা আক্রান্ত সওজের সাবেক প্রকৌশলী ইকরাম স্ত্রীসহ অবৈধ সম্পদের মামলার আসামী এ বছরেই মাথাপিছু আয় ৩ হাজার ডলার ছাড়িয়ে যাবে: স্থানীয় সরকার মন্ত্রী শেরপুর জেলা কারাগারে দুদকের অভিযান ৪ হাজার কর্মচারী নিয়োগে অনিয়ম, মাউশি অধিদপ্তরে দুদকের অভিযান ঘুষের ৮০ লাখ টাকা উদ্ধার ও অবৈধ সম্পদের মামলায় সাবেক ডিআইজি প্রিজনস পার্থের ৮ বছরের কারাদন্ড নানা কৌশলে দুদককে এরিয়ে যাচ্ছেন রুহুল আমিন হাওলাদার ও স্ত্রী
রবিবার, ১৬ জানুয়ারী ২০২২, ১১:৪২ পূর্বাহ্ন

রাজধানীতে ঝুলন্ত তার অপসারণ: মুখোমুখি ক্যাবল অপারেটর ও ডিএসসিসি

দূরবীণ নিউজ প্রতিবেদক:
রাজধানীতে অপরিচ্ছন্ন ও ঝুলন্ত তারের জঞ্জাল নিয়ে মুখোমুখি অবস্থানে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন এবং বেসরকারি ক্যাবল অপারেটররা। ঢাকা দক্ষিণ সিটির মেয়র শেখ ফজলে নুর তাপস আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে এসব ঝুলন্ত তার অপসারন সম্পন্ন করার সিদ্ধান্তে অটল রয়েছে। গত আড়াই মাস যাবৎ এসব ঝুলন্ত তার অপসানের জন্য দুইটি মোবাইল কোর্ট মাঠে কাজ করে যাচ্ছেন।

আগামীকাল রোববার (১৮ অক্টোবর) থেকে প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে দুপুর একটা পর্যন্ত সারা দেশে বাসা-বাড়ি, অফিস ও ব্যাংকসহ সব পর্যায়ে ইন্টারনেট ডাটা কানেক্টিভিটি এবং ক্যাবল টিভি বন্ধ রাখার কর্মসীচিতে যাচ্ছে ক্যাবল অপারেটররা।

তবে ভোগান্তিতে পড়বেন নগরীর বিভিন্ন এলাকার লোকজন। বর্তমানে ডিজিটাল পদ্দতিতে চলছে যাবতীয় কার্যক্রম। ব্যাংকিং কার্যক্রম থেকে শুরু করে স্কাল,কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের পড়াশুনা, দেশ বিদেশের খবররা খবর সব কিছুই এখন ইন্টারনেটের মাধ্যমে পরিচালিত হচ্ছে।

এদিকে আইএসপিএবি- এর পরিচালক নাজমুল করিম ভূঁইয়া বলেন, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন গত আগস্ট মাস থেকে আইএসপি ও ক্যাবল টিভি অপারেটরদের কোনো নোটিশ দেওয়া ছাড়াই প্রধান সড়কসহ সব সড়ক থেকে ঝুলন্ত ক্যাবল অপসারণ করা শুরু করে। এতে গত দুই মাসে আনুমানিক ২০ কোটি টাকার ক্ষতির সম্মুখীন হতে হয়েছে আইএসপিএবি ও কোয়াবকে।’

তারা গত ১২ অক্টোবর সংবাদ সম্মেলন থেকে তাদের দাবিগুলো মেনে নেয়ার আবেদন জানিয়ে ছিলেন। ওই দিন তারা ঘোষণা দিয়েছিলেন আগামী১৮ অক্টোবর রোববার থেকে প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে দুপুর একটা পর্যন্ত সারা দেশে বাসা-বাড়ি, অফিস ও ব্যাংকসহ সব পর্যায়ে ইন্টারনেট ডাটা কানেক্টিভিটি এবং ক্যাবল টিভি বন্ধ রাখা হবে।

তাদের দাবিগুলো হলো- আইএসপিএবি, কোয়াব, বিটিআরসি, এনটিটিএন এবং সিটি করপোরেশন সমন্বয়ে ‘লাস্ট মেইল ক্যাবল’ স্থাপন করা হয়েছে কিনা, তা নিশ্চিত করার জন্য একটি কমিটির মাধ্যমে সরেজমিন তদন্তের ব্যবস্থা করা, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে বাসা-বাড়ি, অফিস ও ব্যাংকসহ সব পর্যায়ে ইন্টারনেট ও ক্যাবল টিভি সেবার মূল্য নির্ধারণ করা, গ্রাহক পর্যায়ে ইন্টারনেট ও ক্যাবল টিভি সেবা স্বল্পমূল্যে দেওয়ার লক্ষ্যে এনটিটিএনের মূল্য সরকারের মাধ্যমে নির্ধারণ করা এবং গ্রাহক পর্যায়ে নিরবচ্ছিন্ন সেবা প্রদানে নিশ্চয়তার পক্ষে এনটিটিএনগুলো সার্বিক সক্ষমতা আছে কিনা, তা যাচাইয়ের ব্যবস্থা করা।

কিন্ত তাদের দাবি গুলো না মেনে ঢাকা দক্ষিণ নগরীতে ঝুলন্ত তার অপসারণ চালিয়ে যাচ্ছে। যারফলে আইএসপিএবি’র পক্ষ থেকে ঘোষণা অনুযায়ী তারাও ধর্মঘটে যাচ্ছেন।

এদিকে মেয়রের মুখপাত্র ও জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. আবু নাছের এ প্রতিনিধিকে বলেন, ক্যাবল অপারেটরদের আর কোন ছাড়া নেই। গত ৫ আগস্ট থেকে শুরু হওয়া অবৈধ তার অপসারণ কর্মসূচি আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে সম্পন্ন করা হবে। তাদের হুমকি দমকিতে অবৈধ তার অপসারণ কর্মসূচি বন্ধ করা হবে না।

তিনি বলেন, ক্যাবল অপারেটরদের জন্য তো বিকল্প ব্যবস্থা রয়েছে, তারা সে দিকে কেনো যাচ্ছে না। মাটির নিচ দিয়ে তার টানার জন্য সিস্টেম রয়েছে, এত দিন কেনো সেদিকে তারা যায়নি। তারা সবাইকে জিম্মি করে ব্যবসা করবে এটা আর হতে দেওয়া যাবে না। সিটি করপোরেশনকে ট্যাক্স দিয়ে ব্যবস্থা করতে হবে। বর্তমানে তারা সিটি করপোরেশনকে কোন ট্যাক্স দেয় না।

আবু নাছের বলেন, একটা শহর সমস্যকে পুজিঁ করে ক্যাবল অপারেটররা পুরো দেশটা জিম্মি করবে, এ বিষয়টি অবশ্যই সরকারের দেখার আছে।

ঢাকা উত্তর সিটির মেয়র তো ক্যাবল অপারেটর অ্যাসোসিয়েশনের নেতাদের সাথে একটা সমঝোতায় এসেছে, তাহলে ঢাকা দক্ষিণ কেন এ বিষয়ে এতাে
কঠোর অবস্থানে রয়েছে,এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি মো. আবু নাছের বলেন, এটা একান্ত ঢাকা উত্তরের বিষয়। ঢাকা দক্ষিণ তার সিদ্ধান্তে অটল রয়েছে।

ডিএনসিসি:
ঢাকা উত্তর তার কাটা বন্ধ রেখেছে এবং উত্তরায় একটি পাইলট প্রকল্প হাতে নিয়েছে। একটি পাইলট প্রকল্পের মাধ্যমে উত্তরার চার নম্বর সেক্টর এলাকায় কয়েকটি সড়কের ঝুলন্ত তার নেয়া হচ্ছে সড়কের নিচে করা ইউটিলিটি ডাক্টে। পর্যায়ক্রমে পুরো ডিএনসিসি এলাকায় এই ডাক্ট বসানো হবে। এর মাধ্যমে তারগুলো নিয়ে যাওয়া হবে মাটির নিচ দিয়ে।

উত্তরা চার নম্বর সেক্টরের কিছু সড়কে সড়কের ঝুলন্ত তার নেয়া হচ্ছে সড়কের নিচে করা ইউটিলিটি ডাক্টে। পাইলট প্রকল্পের অংশ হিসেবে কয়েক কিলোমিটার সড়কে এই ডাক্ট বসানো হচ্ছে। এখানে ৯ ইঞ্চি ব্যাসের পাইপের মধ্যে দিয়ে নিয়ে যাওয়া হবে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের অপটিক্যাল ফাইবারসহ নানা ধরনের ক্যাবল। ডাক্ট বসাতে প্রতি মিটারে খরচ হচ্ছে ৭৮০ টাকা। সেই সঙ্গে ডিএনসিসির নতুন যুক্ত হওয়া ওয়ার্ডগুলোতেও আগামীতে যত সড়ক নির্মাণ হবে, তার দুই পাশে ইউটিলিটি ডাক্ট বসানো হবে বলে জানা যায়।

সরেজমিন খোজঁ নিয়ে জানা যায়, সহসাই রাজধানীতে অগোছালো ,অপরিচ্ছন্ন ঝুলন্ত তারের জঞ্জাল দূর হচ্ছে না। ঢাকা সিটি করপোরেশনই ঝুলন্ত তারের জঞ্জাল দূর করার অভিযান চলছে। আর এ ঝুলন্ত তার নিয়ে এখনো স্থায়ী সমাধানের কোন উদ্যোগ চোখে পড়ছে না। শুধুমাত্র তারগুলো কেটেই ফেলা হচ্ছে। অনেকে আবার ওই কাটা তার সংযোগ দিয়ে নিজেদের প্রয়োজনীয় কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন বলেও খবর পাওয়া যাচ্ছে।

এসব ঝুলন্ত তারগুলো ঢাকা শহরের সৌন্দর্য নষ্ট হচ্ছে এটা সত্য। কিন্তু এসব তারগুলো কারা ব্যবহার করছেন সেটাও দেখার বিষয়। কেটে ফেলে দেওয়াটাই কি সমাধান। এভাবে তারগুলো কেটে ফেলার ফলে সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন নগরবাসী ।

রাজধানীর প্রধান সড়কসহ প্রতিটি এলাকায় অলি-গলিতে বিদ্যুতের খুঁটিতে সঙ্গে প্যাচানো অসংখ্য তার ঝুলছে। আর এসব তারগুলোর সাহায়্যে নগরীর প্রতিটি বাসা-বাড়ি,অফিস এবং ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে সংযোগ রয়েছে ডিসের লাইন, ইন্টারনেট লাইন, টেলিফোন লাইন। আগে থেকে এসব তার টানানোর বিষয়ে সুনিদিষ্ট কোনো পরিকল্পনা এবং উদ্যোগ না থাকায় অপরিকল্পিতভাবেই চলছে এসব কার্যক্রম। ফলে দ্রুত সময়ের মধ্যে সংশ্লিষ্ট এলাকায় বেসরকারি উদ্যোগে পরিচালিত ডিসের লাইন, ইন্টারনেট লাইনসহ নানা কাজে ব্যবহ্নত ঝুলন্ত তারগুলো আজ জঞ্জালে পরিনত হয়েছে। #

 

 


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


অনুসন্ধান

নামাজের সময়সূচী

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৫:২৮ পূর্বাহ্ণ
  • ১২:১২ অপরাহ্ণ
  • ৩:৫৬ অপরাহ্ণ
  • ৫:৩৬ অপরাহ্ণ
  • ৬:৫৩ অপরাহ্ণ
  • ৬:৪৩ পূর্বাহ্ণ

অনলাইন জরিপ

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘বিএনপি এখন লিপসার্ভিসের দলে পরিণত হয়েছে।’ আপনিও কি তাই মনে করেন? Live

  • হ্যাঁ
    33% 2 / 6
  • না
    66% 4 / 6