সর্বশেষঃ
গাজীপুর জেলা রেজিস্ট্রার ও তার স্ত্রীর সম্পদের হিসেবে চেয়েছে দুদক ডিএনসিসির কাউন্সিলর শফিকুল ইসলাম সেন্টু’র সম্পদের হিসেব চেয়েছে দুদক দুর্নীতিবাজদের শাস্তির প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে দুদককে বললেন রাষ্ট্রপতি বিটিআরসি অনুমোদনহীন ৫৯ আইপি টিভি বন্ধ করেছে রাস্তা ও ভবন নির্মাণে গুণগত ও স্ট্যান্ডার্ড সাইজের ইট ব্যবহারের নির্দেশ স্থানীয় সরকার মন্ত্রীর রাজধানীতে আরো ১৮৭ ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি সাংবাদিকদের সুনাম ক্ষুণ্ণ করেছে: জাতীয় প্রেস ক্লাব সভাপতি আফগানিস্তানে স্কুল-কলেজ খুলছে ‘সব ই-কমার্স.প্রতারক. প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে, কাউকে ছাড়া হবে না’ মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্ম লীগের অনুষ্ঠান বন্ধ: ওবায়দুল কাদের
সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৫২ পূর্বাহ্ন

প্রাথমিক বিদ্যালয় জাতীয়করন দিবসে, প্রধানমন্ত্রীর সুস্বাস্থ্য ও দীর্ঘায়ু কামনায় বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠান

দূরবীণ নিউজ প্রতিবেদক:

প্রাথমিক বিদ্যালয় জাতীয়করন দিবস উপলক্ষে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুুজিবুর রহমানের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুস্বাস্থ্য এবং দীর্ঘায়ু কামনায় এক বিশেষ দোয়া ও আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়েছে।

জাতির জনকের পরিবারবর্গ এবং প্রধানমন্ত্রীর জন্য দোয়া পরিচালনা করেন জনাব ছালেহ আহম্মেদ, সহকারি শিক্ষক খলিলুর রহমান, সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়।সভায় প্রধানমন্ত্রীর পরিবারবর্গের জন্য বিশেষ দোয়া এবং তার পরিবারের সকল শহীদদের ও শহীদ বীর মুক্তিযোদ্ধাদের রূহের মাগফিরাত কামনা করা হয়।

শনিবার ( ৯ জানুয়ারী) বাংলাদেশ জাতীয়করণকৃত প্রাথমিক শিক্ষক পরিষদের অস্থায়ী কার্যালয়ে জাতীয়করণ দিবস উপলক্ষে দোয়া ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। দিনব্যাপী এই সভায় সভাপতিত্ব করেন, সংগঠনের আহবায়ক এম.এ মান্নান। প্রধান আলোচক সংগঠনের সদস্য সচিব এইচ.এম রুহুল আমিন।

সভায় অন্যান্যের মধ্যে আরো বক্তব্য রাখেন, ঢাকা মহানগরের সভাপতি দ্বীন ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক মোঃ আমিনুল ইসলাম, পিয়ারা খানম, সারোয়ার জাহান,আব্দুর রউফ, খুলনা জেলার সভাপতি জাকির হোসেন, মানিকগঞ্জ জেলার সভাপতি হাবিবুর রহমান, গোপালগঞ্জ জেলা সভাপতি প্রেমানন্দ ও সাধারণ সম্পাদক বদিউজ্জামান, সুবল চন্দ্র দাস, ভোলা জেলার সভাপতি আনোয়ার হোসেন, আবু মোঃ সাইফুল্লাহ, নেত্রকোনা জেলার সভাপতি শফিকুর রহমান চন্দন, সাধারণ সম্পাদক মোঃ রইস উদ্দিন, সুনামগঞ্জ জেলার সভাপতি আলী হোসেন ও সাধারণ সম্পাদক আবু বকর সিদ্দিক, শফিকুর রহমান সুরুজ, সিলেট জেলার সভাপতি সাইফুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক সুকেস চন্দ্র দাস এবং অন্যান্য জেলা ও উপজেলার নেতৃবৃন্দ।

সভায় বক্তারা বলেন, হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যুদ্ধবিদ্ধস্ত দেশের দূর্বল অর্থনৈতিক অবস্থার মধ্যেও ১৯৭৩ সালে উন্নয়ন ও সমৃদ্ধির লক্ষ্যে ৩৬,১৬৫টি বে-সরকারি বিদ্যালয় ও কর্মরত শিক্ষকদের চাকুরী জাতীয়করণ করেছিলেন।

তারই ধারাবাহিকতায় জাতির পিতার যোগ্য উত্তরসূরী গণতন্ত্রের মানস কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০১৩ সালে ৯ জানুয়ায়ী শিক্ষক মহাসমাবেশের মাধ্যমে দেশের ২৬,১৯৩টি বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় এবং ওইসব বিদ্যালয়ে কর্মরত শিক্ষকদের চাকুরী জাতীয় করণের ঐতিহাসিক ঘোষনা দিয়েছিলেন। ফলে ১,০৪.৭৭২ জন শিক্ষক ও তাদের পরিবারের প্রধানমন্ত্রীর কাছে কৃতজ্ঞ হয়ে আছেন।

শুধু তাই নয়. প্রধানমন্ত্রী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের জীবন যাত্রার মান উন্নয়নের লক্ষ্যে ২০১৪ সালের ৯ মার্চ প্রধান শিক্ষকদের ২ (দুই) ধাপ বেতন বৃদ্ধিসহ দ্বিতীয় শ্রেণীর মর্যাদা এবং সহকারী শিক্ষকদের ১ (এক) ধাপ বেতন বৃদ্ধির ঘোষণা দেন।

শিক্ষানীতি প্রনয়নসহ উপরোক্ত তিনটি সময়পযোগী ঐতিহাসিক সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নে প্রাথমিক শিক্ষা ব্যবস্থায় আমূল পরিবর্তন এসেছে। এই বিশাল অর্জনের একক দাবীদার জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার।

প্রাথমিক শিক্ষা ব্যবস্থায় এই বিশাল সাফল্য বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ যেন একক ভাবে ঘরে তুলতে না পারে তার জন্য প্রশাসনের মধ্যে কিছু সংখ্যক স্বার্থন্বেষী কর্মকর্তা ও কর্মচারীগন অপচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। অধিগ্রহণকৃত প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক (চাকুরী শর্তাদি নির্ধারন) বিধিমালা এস.আর ও নং ৩১৫ আইন-২০১৩ এর বিধি-২ উপবিধি-গ, বিধি-৯, উপবিধি-(১) (২) (৩) অনুযায়ী কার্যকর চাকুরীকালের ভিত্তিতে জেষ্ঠ্যতা নির্ধারন, পদোন্নাতি, সিলেকশন গ্রেড এবং প্রযোজ্য টাইমস্কেল প্রাপ্য হইবেন।

কিন্তু বড়ই পরিতাপের বিষয় প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর গত ২০১৭ সালে ৮ অক্টোবর এক পত্রের মাধ্যমে জরুরী ভিত্তিতে বিভাগ ওয়ারী জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারদেরকে ডেকে আনেন। পরে ২০১৩ সালের ১ জানুয়ারি থেকে বেসরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়কে জাতীয়করনের তারিখ ঘোষণার মৌখিক নির্দেশ দিয়েছিলেন। ওই তারিখ থেকেই শিক্ষকদের জেষ্ঠ্যতা তালিকায় ৫০ শতাংশ জাতীয়করণকৃত সহকারী শিক্ষকদের প্রধান শিক্ষক পদে চলতি দায়িত্ব প্রদান করার কথা ছিল।

অথচ জাতীয় করণকৃত শিক্ষকদের জন্য যতগুলো আইন ও পরিপত্র মন্ত্রণালয় কর্তৃক জারী করা পরিপত্রের মধ্যে একটিতেও ২০১৩ সালের ১ জানুয়ারি থেকে গণনার কথা উল্লেখ নেই। দু:খের বিষয় কতিপয় স্বার্থনেসী কর্মকর্তা শিক্ষকদের টাইম স্কেল কর্তনের জন্য ২০২০ সালের ১২ আগস্ট আনাকাঙ্খিত ভাবে অর্থ মন্ত্রণালয় থেকে এক পত্র জারি করা হয়। এর ফলে সারা দেশের শিক্ষকদের মাঝে প্রচন্ড ক্ষোভ ও অস্বস্থি বিরাজ করছে। আর এই সমস্যার দ্রুত সমাধানের জন্য শিক্ষকরা প্রধানমন্ত্রীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। / প্রেস বিজ্ঞপ্তি।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


অনুসন্ধান

নামাজের সময়সূচী

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৪:৩৫ পূর্বাহ্ণ
  • ১১:৫৫ পূর্বাহ্ণ
  • ৪:১৫ অপরাহ্ণ
  • ৬:০০ অপরাহ্ণ
  • ৭:১৪ অপরাহ্ণ
  • ৫:৪৬ পূর্বাহ্ণ

অনলাইন জরিপ

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘বিএনপি এখন লিপসার্ভিসের দলে পরিণত হয়েছে।’ আপনিও কি তাই মনে করেন? Live

  • হ্যাঁ
    20% 1 / 5
  • না
    80% 4 / 5