সর্বশেষঃ
জুরাইনে অবৈধ বিলবোর্ড, খিলগাঁওয়ে অবৈধ মাছ বাজার উচ্ছেদ ঢাকা দক্ষিণ সিটির নারায়ণগঞ্জ সিটি নির্বাচন সুষ্ঠু হয়েছে পর্যবেক্ষণ আন্তর্জাতিক মহলের- স্থানীয় সরকার মন্ত্রী কারা অধিদফতরের ২ ডিআইজি প্রিজনসহ ৪ জনকে দুদকে জিজ্ঞাসাবাদ গোল্ডেন মনিরের বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পদের মামলা এসবিএসি ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যান আমজাদসহ ১৪ জনের বিরুদ্ধে দুদকের ২ মামলা ২৪তম বিসিএস প্রশাসন কার্যনির্বাহী কমিটির সভাপতি নাছির উদ্দিন সম্পাদক আবদুল হামিদ: এ কমিটিকে অভিনন্দ ঢাবির অধ্যাপিকা সাইদা হত্যার পেছনে নগদ টাকার লোভ খুনির এবারও পুরান ঢাকার আকাশে উড়েছে রং-বেরঙের ঘুড়ি ঢাকা দক্ষিণের মেয়র তাপস, তার স্ত্রী ও গানম্যান করোনা আক্রান্ত সওজের সাবেক প্রকৌশলী ইকরাম স্ত্রীসহ অবৈধ সম্পদের মামলার আসামী
বুধবার, ১৯ জানুয়ারী ২০২২, ০১:৫২ পূর্বাহ্ন

গ্রামপুলিশ কর্মচারীদের ৫ দফা দাবি

গ্রামপুলিশ কর্মচারীদের ৫ দফা দাবি

দূরবীণ নিউজ প্রতিবেদক:
বাংলাদেশ গ্রামপুলিশ কর্মচারী ইউনিয়নের নেতা-কর্মীরা বাজার দরের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ বেতন প্রদান ও জাতীয় বেতনস্কেলের অন্তর্ভূক্ত করাসহ ৫ দফা দাবি  বাস্তবায়নের জন্য রাজপথে আন্দোলনে নেমেছেন।

শনিবার (২ জানুয়ারী) সকাল ১১টায় উদ্যোগে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

সংগঠনে সভাপতি বাবু ভবেন্দ্রনাথ বিশ্বাসের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের প্রধান সমন্বয়কারী শাহজাহান কবীর জহির, শ্রমিক কর্মচারী ঐক্য পরিসদ নেতা নাইমুল আহসান জুয়েল, রাজেকুজ্জামান রতন, সংগঠনের কেন্দ্রীয় সহ সভাপতি মোঃ আবুল কাসেম, ইস্কান্দার আলী, মোঃ শাহজাহান সরদার, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মোঃ দেলোয়ার হোসেন, মোঃ আব্দুস সালাম, মোঃ আব্দুর রশীদ, সাংগঠনিক সম্পাদক বাবু সত্য নারায়ণ দাস, মোঃ আনসার উদ্দীন, মোঃ আব্দুল গফুর, মোঃ আমানত বিশ্বাস, বাবু নিত্যনন্দ সূত্রধর, মোঃ আব্দুস সালাম, রুস্তম আলী, তাছলিমা আক্তার মায়াসহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ।

নেতৃবৃন্দ তাদের বক্তব্যে বলেন, স্বাধীন বাংলাদেশের বয়স আজ প্রায় ৫০ বছরে উন্নীত, এই ৫০ বছর ধরে আমরা গ্রামপুলিশ কর্মচারীরা নিয়মতান্ত্রিক আন্দোলন, সংগ্রাম করে আসছি, আমাদের পরিবার পরিজন নিয়ে একটা ন্যূনতম সাবলিল জীবনমান নিয়ে যেন বেঁচে থাকতে পারি।

গত ৫০ বছরে বাংলাদেশের ক্ষমতার হাতবদল হয়েছে, বহুবার যারাই ক্ষমতায় আসছে গেছে, তাদের ভাগ্যের পরিবর্তন হয়েছে আলাদীনের চেরাগের মতো। কিন্তু আমাদের দিকে কেউই পেছন ফিরে তাকায়নি। ৫০ বছরের প্রায় ৪০ বছরই এভাবেই আমাদের জীবন চলছে। পাশাপাশি আন্দোলন চলছে, সংগ্রামও আমাদের দাবী, আমরা মর্যাদা নিয়ে মানুষ মতো বাঁচতে চাই।

বর্তমান সরকার ক্ষমতা আশার পর গত দেড় দশক ধরে বলে আসছে বাংলাদেশ আজ উন্নয়নশীল দেশের কাতারে উন্নীত হয়েছে। গড় হিসেবে বাংলাদেশ উন্নয়নশীল দেশের কাতারে উন্নীত হয়েছে, এ সত্য মেনে নিয়ে বলতে হয়। আমরা গ্রামপুলিশরা নি¤œ আয়ের মানুষেও উন্নীত হতে পারিনি।

বর্তমান নিত্যপন্যের বাজার দরের সাথে সামঞ্জস্যহীন এই ভাতা কি করে একটা পরিবার চলতে পারে এ কথা শুনলে সমাজের বিবেকবান মানুষ হতাশ না হয়ে পারে না। ফলে বাজার দরের পাগলা ঘোড়া আমাদের জীবনকে পীষিয়ে তুলছে, আমরা অব্যাহত ভাবে আন্দোলন করছি, পাশাপাশি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা ও চালিয়ে যাচ্ছি।

আমাদের পিট যখন দেয়ালে ঠেকে যাচ্ছে সেই সময় ২০১৫ সালে ৯ এপ্রিল ঢাকার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রাঙ্গনে গ্রামপুলিশ কর্মচারী ইউনিয়নের উদ্যোগে প্রায় ৩০ হাজার গ্রামপুলিশ উপস্থিতিতে মহাসম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এই মহাসম্মেলনের মাধ্যমে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, দেশনেত্রী শেখ হাসিনার বরাবর আমাদের ৭ দফা দাবি পেশ করি।

সেই সময় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সদয় বিবেচনায় গ্রামপুলিশদের একজন দফাদার ৭০০০ সাত হাজার এবং মহল্লাদার ৬৫০০ ছয় হাজার পাঁচশত টাকা নির্ধারণ করা হয়। এই বেতন ভাতার উপর নির্ভর করে আমাদের জীবন চলছে। নির্ধারিত বেতন ভাতার বাইরে রেশন, চিকিৎসাসহ অন্যান্য কোন সুযোগ সুবিধা নেই। কিন্তু সরকারী অংশটুকু পেলেও ইউনিয়ন পরিষদ কর্তৃক প্রদত্ত অংশ এবং যাতায়াত ভাতা অনেক ক্ষেত্রে আমরা পাচ্ছি না।

বর্তমান আকাশচুম্বি বাজার দরের সাথে এই বেতন ভাতার উপর নির্ভর করে একটা পরিবার কিভাবে চলতে পারে, তা আপনাদের হয়তো বুঝিয়ে বলতে হবে না, কারণ আপনারাও জানেন, দেশের উপর থেকে নীচ পর্যন্ত আপনাদের বিচরণ গ্রামপুলিশদের জীবনমান সম্পর্কে আপনার নিশ্চই অবগত। আমরা গ্রামপুলিশরা তাই আপনাদের মাধ্যমে আমাদের দুঃখ বেদনার কথা উল্লেখ করে আমাদের কয়েকটি দাবি পেশ করছি।

দাবি সমূহঃ
১। গ্রামপুলিশদের জীবনমান উন্নয়নে বাজার দরের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ বেতন প্রদান ও জাতীয় বেতনস্কেলের অন্তর্ভূক্ত করতে হবে।
২। সরকারি অনান্য বাহিনীর ন্যায় রেশনিং ব্যবস্থা করতে হবে। গ্রামপুলিশদের ঝুকি ভাতা ও চিকিৎসা ভাতার ব্যবস্থা করতে হবে।
৩। গ্রামপুলিশদের জন্য ইউনিয়ন পরিষদকে প্রশাসনিক ইউনিট হিসেবে ঘোষণা করতে হবে।
৪। গ্রামপুলিশদের এককালীন অবসর ভাতা দফাদার ৮ লাখ, মহাল্লাদার ৭ লাখ নির্ধারণ করে ঘোষণা দিতে হবে।
৫। অন্যান্য বাহিনীর ন্যায় একটি কেন্দ্রীয় অধিদপ্তর প্রতিষ্ঠা এবং প্রশিক্ষনের মাধ্যমে যোগ্য ও দক্ষ বাহিনী হিসাবে গড়ে তোলার ব্যবস্থা করতে হবে।

নেতৃবৃন্দ বক্তব্যে বলেন, গ্রামপুলিশদের মর্যাদা প্রতিষ্ঠার জন্য বর্তমান বাজার দরের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ বেতন প্রদান এবং জাতীয় বেতনের অন্তর্ভূক্ত করন, পাঁচ দফা দাবি তুলে ধরেন এবং এই দাবি মেনে নেওয়ার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।/ প্রেস বিজ্ঞপ্তি ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


অনুসন্ধান

নামাজের সময়সূচী

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৫:২৮ পূর্বাহ্ণ
  • ১২:১২ অপরাহ্ণ
  • ৩:৫৬ অপরাহ্ণ
  • ৫:৩৬ অপরাহ্ণ
  • ৬:৫৩ অপরাহ্ণ
  • ৬:৪৩ পূর্বাহ্ণ

অনলাইন জরিপ

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘বিএনপি এখন লিপসার্ভিসের দলে পরিণত হয়েছে।’ আপনিও কি তাই মনে করেন? Live

  • হ্যাঁ
    33% 2 / 6
  • না
    66% 4 / 6