সর্বশেষঃ
বঙ্গ সি ফুডকে ৫ লাখ টাকা জরিমানা, অবৈধভাবে শিশুখাদ্য উৎপাদন পুরান ঢাকায় মৌলভীবাজারে ফুটপাত দখলমুক্ত, ৫০ হাজার টাকা জরিমানা বাংলাদেশের নারীরা ৮৮ রানে মালয়েশিয়াকে পরাজিত করেছে দুদকের মামলায় অভিযুক্ত ফারইস্ট ফিন্যান্স ও পিএফআই সিকিউটিজের রুবাইয়াত- খালেকসহ ১১ জন রিজার্ভ চুরি মামলার প্রতিবেদন দাখিলে ৩০ দিন পেলো সিআইডি স্বল্প আয়ের আবাসনকে নীতি প্রণোদনার পাশাপাশি নাগরিক সুবিধাদি নিশ্চিত করা প্রয়োজনঃ বিশেষজ্ঞদের অভিমত শ্রমিকদের চাঁদাবাজি প্রতিরোধ খেয়াল রাখতাম: মন্নুজান সুফিয়ান বঙ্গমাতা গোল্ড কাপের ফলেই সাফ নারী ফুটবলের শিরোপা জয় : গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী মিরপুরে খেলার মাঠের দাবিতে অনশনরত শিক্ষার্থীদের সাথে ডিএনসিসি মেয়রের সংহতি তত্ত্বাবধায়ক সরকারে ফিরে যাওয়ার সুযোগ নেই: আইনমন্ত্রী
শুক্রবার, ০৭ অক্টোবর ২০২২, ০৭:৩৩ অপরাহ্ন

করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে জাতীয় পরামর্শ কমিটি গঠনসহ পাঁচ দফা দাবি বিএনপির

বিশেষ প্রতিনিধি,দূরবীণ নিউজ:
সারাদেশে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাস সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে সরকারকে এখনই জাতীয় আপতকালীন পরামর্শ কমিটি গঠনসহ পাঁচটি সমন্বিত পদক্ষেপ গ্রহনের দাবি জানিয়েছে বিএনপি।

আজ বৃহস্পতিবার (৮ জুলাই) দুপুরে এক ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলনে বিএনিপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সরকারের প্রতি সর্বাত্মক পরিকল্পনা গ্রহনের এই দাবি উপস্থাপন করে।

ভার্চুয়াল সংবাদসম্মেলনে বিএসপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড,খন্দকার মোশারফর হোসেন, ড. আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, আমীর খসরুমাহমুদ চৌধুরী ও দলের চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য ইসমাইল জবিহউল্লাহসহ আরো অনেকে অংশগ্রহণ করেন এবং বক্তব্য রাখেন ।
 বিএনপির পাঁচটি সমন্বিতদাবি হচ্ছে:
১.দরিদ্রমানুষকে ঘরে রাখার জন্য তাদের ঘরে নগদ কমপক্ষে এককালীন ১৫ হাজার টাকা এবং খাদ্যপৌঁছে দিতে হবে।
২. মানুষকে বাইরেবের হবার জন্য স্বাস্থ্যবিধি মানা এবং মাস্ক ব্যবহারে উদ্বুদ্ধ করতে হবে।

৩. অন্তত ৮০শতাংশ মানুষকে অতি দ্রুত টিকা প্রদান সম্পন্ন করতে হবে। এজন্য একটি সমন্বিত ও সুনির্দিষ্ট রোড-ম্যাপ প্রনয়ন করে জাতির সামনে উপস্থাপন করতে হবে এবং তা বাস্তবায়নকরতে হবে।

৪. অবিলম্বে দেশে টিকা উৎপাদনের কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহন করতে হবে। বর্তমানেসারাদেশে করোনা আক্রান্ত রোগীদের সর্বাত্মক স্বাস্থ্য সেবা নিশ্চিত করতে হবে।এজন্য সারাদেশে হাসপাতালগুলোতে প্রয়োজনীয় অক্সিজেন সরবারহ, আইসিইউ ও করোনা বেডবৃদ্ধিসহ অত্যাবশ্যকীয় চিকিৎসা সামগ্রি ও পর্যাপ্ত চিকিৎসক-স্বাস্থ্যকর্মী নিয়োগকরতে হবে।

৫. অনেক বিলম্বেহলেও এখনি দেশে স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ, সকল রাজনৈতিক দল, এনজিও এবং সামাজিক সংগঠনেরসমন্বয়ে একটি জাতীয় আপতকালীন পরামর্শ কমিটি গঠন করতে হবে।

মির্জা ফখরুল বলেন, “ এই পাঁচটি বিষয় করোনা নিয়ন্ত্রণে প্রধান টার্গেট হিসেবে নির্ধারণ করতেহবে।”
তিনি বলেন, আমাদের মনে রাখতে হবে করোনা মহামারীর বিরুদ্ধে যে লড়াই সেটা বস্তুত একটিদীর্ঘস্থায়ী লড়াই।”“ অবিলম্বেদরিদ্র, দুঃস্থ ও কর্মহীন জনগোষ্ঠির প্রত্যেককে অবিলম্বে এককালীন নগদ ১৫ হাজারটাকা প্রদানের দাবি জানাচ্ছি। আমাদের জিডিপির ৬-৭% এই খাতে বরাদ্দ করেই দরিদ্রজনগোষ্ঠিকে মানবিক সহায়তা দেয়া সম্ভব। যা দরকার সেটা হলো সরকারের স্বদিচ্ছা ও আন্তরিকতা। ঐক্যবদ্ধভাবে এই মহাসংকট মোকাবিলার জন্য আমাদের দলের পক্ষ থেকে পুনরায়উদাত্ত আহবান জানাচ্ছি।

”বিএনপি মহাসচিব বলেন, “লকডাউন কার্যকর করতে হলে দিন আনে দিন খায় শ্রেণীর মানুষের কাছে টাকা পৌঁছাতে হবে,খাদ্য পৌঁছাতে হবে তাদের হাতে। সেজন্য এই কাজগুলো করা দরকার এই মুহুর্তে।”“ যেটা বলেছেন ড. আবদুল মঈন খান যে এই মুহুর্তে ১০ হাজার কোটি টাকা বরাদ্ধ করুন যাতে করে এই শ্রেনীর মানুষের কাছে তার খাদ্য ও তার টাকা পৌছানো যেতে পারে। এটাই একমাত্রপথ এই লকডাউন কার্যকরের।”
লকডাউনে করোনাপরিস্থিতির ভয়াবহতা এবং দিন আনে দিন খায় শ্রেনীর মানুষের দৈনন্দিন জীবন-জীবিকারদিশেহারা অবস্থা তুলে ধরতে এই ভার্চুয়াল সংবাদ সম্মেলন হয়।

করোনার লকডাউনেঅভাবে তাড়নায় মুন্সিগঞ্জের দিনমজুর দ্বীন ইসলামের আত্মহত্যা, দিন আনে দিন খায়শ্রেনীর মানুষের দুর্ভোগ, তাদের জীবন-জীবিকার কষ্টের নানা ঘটনা তুলে ধরে মির্জাফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, “ করোনা মহামারী একটা সর্বাত্মক যুদ্ধ।

ভোট ডাকাত সরকারকরোনা যুদ্ধে সুনির্দিষ্ট পরিকল্পনা তো নেয়নি বরঞ্চ তারা ব্যক্তিগত আচার আচরণ,হিংসা ছড়ানো ও বাগাড়ম্বরের মাধ্যমে জাতিকে ভয়াবহ বিভক্তির দিকে ঠেলে দিয়ে করোনাযুদ্ধে ঐক্যবদ্ধভাবে লড়াইয়ের পরিবেশ বিনষ্ট করেছে।”“

সম্প্রতিসংসদে দাঁড়িয়ে দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব দেশনেত্রী বেগম খালেদাজিয়ার বিরুদ্ধে মিথ্যা ও উদ্দেশ্যমূলক মিথ্যাচার যুদ্ধকালীন সময়ে একজন অদক্ষসেনাপতির আচরণের সমতুল্য। অথচ বিএনপির পক্ষ থেকে আমরা প্রথম থেকেই জাতীয় ঐক্যেরমাধ্যমে একসাথে সুচিন্তিত পরিকল্পনা নিয়ে এই বৈশ্বিক মহামারী মোকাবিলার আহবান জানিয়েছিলাম এবং বিকল্প প্রণোদনা ও বাজেট বরাদ্দের প্রস্তাব করেছিলাম। কিন্তুসরকার তাতে কর্ণপাত করেনি।”করোনা ক্ষমতাসীনদের জন্য আর্শীবাদ।

মির্জা ফখরুলইসলাম আলমগীর বলেন, “ মোবাইল ফোনের মাধ্যমে জনপ্রতি আড়াই হাজার টাকা প্রদানেরক্ষেত্রে সংঘটিত দুর্নীতি আর হতদরিদ্রের জন্য বরাদ্দকৃত ত্রাণ সামগ্রি চুরিরকাহিনী এসব দেখে মনে হয় করোনা সরকার দলীয় লোকজনের জন্য যেন বরং আর্শীবাদ হয়েএসেছে। অর্থমন্ত্রণালয়ের এক অবস্থানপত্রে ধরা পড়েছে মোবাইল ফোনের মাধ্যমে প্রদেয়৫০ লক্ষের তালিকায় ১৪ লক্ষ ৩৩ হাজার লোকের নামই ভুয়া।

তিনি বলেন, “আজকের পত্রিকায় একটা খবর আছেযে, ঝিনাইদহে দুই জন কোটিপতিকে আপনার এই ত্রাণ দেয়া হয়েছে। একজনের নাম খোকনসরকার আরেক নাম হচ্ছে রাজু দাস। তারা কোটিপতি। একজনের জুয়েলারি আছে, আরেকজনেরকোম্পানি আছে।”“

মেগাপ্রজেক্টের মেগা দুর্নীতির সব কাহিনী তো আপনাদের জানা আছে। এসকল মেগাপ্রজেক্টে প্রকল্প গ্রহন ও বাস্তবায়ন পর্যায়েচরম অস্বচ্ছতা, অদক্ষতা ও রাষ্ট্রীয় সম্পদ অপচয় ও মহা ‍দুর্নীতির মহা রেকর্ড তৈরিহচ্ছে। এই ব্যাপারে ইতোপূর্বে অনেকবার বলা হয়েছে। ওই সকল প্রকল্পের অর্থ বর্তমানেমানুষের জীবন বাঁচানোর উদ্দেশ্যে বরাদ্দ দিতে পারে সরকার। কিন্তু তা তারা করছেনা।”

করোনা টিকাপ্রাপ্তির বিষয়ে স্থায়ী কমিটির সদস্য সাবেক স্বাস্থ্য মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফহোসেন বলেন, “ আজকে টিকা প্রদানকে গুরুত্ব দিতে হবে। সারা পৃথিবীতে আজকে প্রমাণিতহয়েছে- যেসব দেশ ৭০/৮০ শতাংশ মানুষকে টিকা দিতে পেরেছে তারাই কিন্তু করোনাকেনিয়ন্ত্রণ করতে পেরেছে।এর কোনো বিকল্প নাই।”“

আমরা লাখেলাখে টিকার হিসাব দেখলে হবে না। এখানে কোটি কোটি টিকা একেক মাসে আসার হিসাব আমরাদেখতে চাই। তাহলেই বাংলাদেশকে করোনার এই ভয়াল গ্রাস থেকে আমরা পরিত্রাণ করতেপারবো, নিয়ন্ত্রণ করতে পারবো। সেই লক্ষ্যে আমি আবার সরকারের প্রতি আহবান জানাচ্ছি,এই ব্যাপারে রাখ-ঢাক না করে অতি দ্রুত কোটি কোটি টিকা আমদানি করার ব্যবস্থা করেন,জনগনকে রক্ষার ব্যবস্থা করেন, এদেশের মানুষের জীবন-জীবিকাকে রক্ষা করেন। তা নাহলে আপনারাএদেশের ইতিহাসের কাছে দায়বদ্ধ থাকবেন, একদিন এদেশের জনগন আপনাদের ব্যাপারে সঠিকভাবেআপনার ব্যর্থতা ইতিহাসে লেখে রাখবে।”

জাতীয় করোনাপরিস্থিতি পর্যবেক্ষন কমিটির আহবায়ক স্থায়ী কমিটি ইকবাল হাসান মাহমুদ টুক বলেন, “ গতবছর দুই কোটি মানুষের কাছে আমরা সাহায্য পৌঁছিয়ে দিতে পেরেছিলাম। এবার এই দ্বিতীয় ঢেউয়ের আমরা আগের মতোই ব্যবস্থা নিয়েছি। এবার প্রতিটি জেলায় আমাদের দলের অফিসে হেলথসেন্টার করার ব্যবস্থা করা হয়েছে। সেখানে অক্সিজেন, প্রয়োজনীয় ঔষধ-স্বাস্থ্য সামগ্রি থাকবে।

অলিরেডি এই কাজ বেশ কয়েকটি জেলায় শুরু হয়ে গেছে। আগামীদুই সপ্তাহের মধ্যে প্রতিটি জেলার অফিসে এই হেলথ সেন্টার প্রতিষ্ঠা করা হবে।”দরিদ্র মানুষকে আর্থিকসাহায্য ও খাবার-দাওয়ার। যেহেতু লকডাউন। কোথাও গেলে আমরা প্রশাসনের থেকে বাধাপ্রাপ্তহই। সেজন্য আমরা যে যা পারি সীমিত সামর্থের মধ্যে মানুষজনকে সহযোগিতার ব্যবস্থাকরেছি। একটা বিরোধী দল হিসেবে এতো কষ্টের মধ্যেও আমরা করোনা রোগীদের পাশে আছি ওকাজ করে যাচ্ছি।”

/এডিজেড/একে/দূরবীণ নিউজ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.


অনুসন্ধান

নামাজের সময়সূচী

  • ফজর
  • যোহর
  • আছর
  • মাগরিব
  • এশা
  • সূর্যোদয়
  • ৪:৪০ পূর্বাহ্ণ
  • ১১:৫০ পূর্বাহ্ণ
  • ৪:০৩ অপরাহ্ণ
  • ৫:৪৫ অপরাহ্ণ
  • ৬:৫৮ অপরাহ্ণ
  • ৫:৫১ পূর্বাহ্ণ

অনলাইন জরিপ

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘বিএনপি এখন লিপসার্ভিসের দলে পরিণত হয়েছে।’ আপনিও কি তাই মনে করেন? Live

  • হ্যাঁ
    33% 3 / 9
  • না
    66% 6 / 9