শিরোনাম :
‘জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে প্রথমবারের মতো চার বাংলাদেশী নারী বিচারকের অংশগ্রহণ’ ড্যাপ বাস্তবায়নে রিহ্যাব ও বিএলডিএ-এর সুপারিশ পর্যালোচনায় ওয়ার্কিং কমিটি গঠন: এলজিআরডি মন্ত্রী দেশের ইমেজ সবার আগে : প্রধান বিচারপতি সোহরাওয়ার্দীর সাবেক পরিচালক ডা. উত্তমের লাইসেন্স বাতিল ও সরকারি টাকা ফেরত চেয়ে আইনী নোটিশ ৭ মার্চের ভাষণ গেরিলা যুদ্ধের প্রস্ততি, রাজনীতির নির্দেশনার দলিল: দুদক চেয়ারম্যান ৭ই মার্চ বাঙালি জাতির জন্য অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণঃ ডিএসসিসি মেয়র নৃত্যশিল্পী ইভানের বিরুদ্ধে তদন্ত প্রতিবেদন ২৪ মার্চ ‘৭ দিনের মধ্যে বিটিআরসিকে দুদক কর্মকর্তার ‘ঘুষ দাবির’ কললিস্ট দাখিলের নির্দেশ’ কুড়িগ্রামের সাবেক ডিসিসহ সাংবাদিক নির্যাতনে জড়িতদের বিরুদ্ধে মামলা চলবে: সুপ্রমিকোর্ট প্রীতি ক্রিকেট ম্যাচে, পার্লামেন্ট মেম্বার্স ক্লাবকে হারিয়ে ডিএনসিসির জয় লাভ ঐতিহাসিক ৭ মার্চ ও ১৭ মার্চ বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনে ডিএসসিসিতে নানা আয়োজন দেশে করোনায় আরো ১০ জনের মৃত্যু এবং নতুন শনাক্ত ৫৪০ হুজির অপারেশন শাখার প্রধানসহ ৩ আসামি ৩ দিনের রিমান্ডে প্রয়োজনে জমি অধিগ্রহণ করে প্রতিটি ওয়ার্ডে খেলার মাঠ করা হবেঃ মেয়র তাপস স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে ডিআরইউ’র মাসব্যাপী কর্মসূচি সাংবাদিক শাওনের রোগমুক্তির জন্য দোয়া কামনা ৭ মার্চ সারাদেশে ৬৬০ থানায় একযোগে পুলিশের অনুষ্ঠান থাকবে: আইজিপি শিগগিরই ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সংশোধন হচ্ছে: আইনমন্ত্রী ব্রাহ্মণবাড়িয়া আইনমন্ত্রীর উপস্থিতিতে ২ মেয়র প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষ এবার মৃত ব্যক্তির ব্যাংকের টাকার পাওনাদার নিধারণী মামলা আপিল বিভাগ
সোমবার, ০৮ মার্চ ২০২১, ০৫:২৯ পূর্বাহ্ন

এবার মশা নিয়ন্ত্রণে রাখতে পুরোদমে মাঠে ডিএনসিসি: প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা

দূরবীণ নিউজ প্রতিবেদক :
ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মোঃ মোমিনুর রহমান মামুন বলেছেন, এডিস ও কিউলেক্স মশা নিয়ন্ত্রণে গত বছরের অভিজ্ঞতা কাজে লাগাতে চাই। আমারা জানি কোথায় এডিস মশা বংশবিস্তার করে, কোথায় এদের ঘনত্ব বেশি, কোন বয়সের মানুষ বেশি আক্রান্ত হয় ইত্যাদি।

তিনি বলেন, এবার ২০২০ সালের শুরু থেকেই এডিস ও কিউলেক্স মশা নিয়ন্ত্রণে পুরোদমে মাঠে নেমেছে ডিএনসিসি।

মঙ্গলবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) ডিএনসিসির ৭ নম্বর অঞ্চলের অধীন দক্ষিণখানের কে সি হাসপাতাল কনভেনশন সেন্টারে এডিস ও কিউলেক্স মশা নিয়ন্ত্রণে এক সচেতনতামূলক অ্যাডভোকেসি সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

ডিএনসিসির অঞ্চল ৭ এর আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা রুহুল কুদ্দুস এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ সভায় অন্যান্যের মধ্যে অঞ্চল ১ আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা জুলকার নায়ন ও অঞ্চল ৮ এর আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা আবেদ আলী, ৪৭ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মোতালেব মিয়া, ৫০ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর ডি এম শামীম, সংরক্ষিত ওয়ার্ড নম্বর ১৬ এর কাউন্সিলর ইলোরা পারভীন, দক্ষিণখান ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান তোফাজ্জল হোসেনসহ এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ, মসজিদের ইমামগণ, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকবৃন্দ, স্কাউট সদস্যবৃন্দ, সুশীল সমাজের প্রতিনিধিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা বলেন, গত বছর বিভিন্ন আঞ্চলিক ও কেন্দ্রীয় পর্যায়ে একাধিক অবহিতকরণ সভা, সচেতনতামূলক পদযাত্রা ও পথসভা, বাউল সংগীত, জাতীয় পত্রিকায় গণবিজ্ঞপ্তি, সচেতনতামূলক বার্তা, টেলিভিশনে টিভিসি প্রচার, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক প্রচার ইত্যাদি কার্যক্রম পরিচালনা করেছি।

তিনি আরো বলেন, “গত বছর ইমামগণ প্রতি জুমার নামাজে তাঁদের বয়ানে এডিস মশা নিয়ন্ত্রণে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার গুরুত্ব নিয়ে আলোচনা করেছেন, যা অত্যন্ত ফলপ্রসূ ছিলো। এবারও ইমামগণ আরো সক্রিয়ভাবে থাকবেন”।

প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা আরো বলেন, মশক নিধন কার্যক্রম আরো বেগবান করতে এরই মধ্যে ২০০টি ফগার মেশিন, ২৩৮টি পালস ফগমেশিন, ১৫০টি হার্টসন হস্তচালিত মেশিন, ৩৪০টি প্লাস্টিক হস্তচালিত মেশিন, ২টি ভেহিকল মাউন্টিং ফগার মেশিন, ১০টি মটরসাইকেল ফগার ও হস্তচালিত মেশিন, ২০টি মিস্ট ব্লোয়ার/পাওয়ার স্প্রে মেশিন ক্রয়পূর্বক কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে।

ভবিষ্যতে আরো কয়েকটি ভেহিকল মাউন্টিং ফগার মেশিন ক্রয়ের পরিকল্পনা আছে। আমরা বিভিন্ন সংস্থা ও ব্যক্তি মালিকানাধীন প্রায় ১ হাজার বিঘা জলাশয়/ডোবা/পুকুর এর জলজ আগাছা ও কচুরিপানা পরিষ্কার করেছি, যা এখনও চলমান।

ডিএনসিসির উপ-প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা লে. কর্ণেল মোঃ গোলাম মোস্তফা সারওয়ার এই সভায় এডিস ও কিউলেক্স মশা নিয়ন্ত্রণে ডিএনসিসির বিভিন্ন কার্যক্রম তুলে ধরেন।

তিনি বলেন, এডিস মশা নিয়ন্ত্রণে ২০১৯ সালে ডিএনসিসির সামগ্রিক কার্যক্রম এবং ২০২০ সালে চলমান ও আসন্ন এডিস মশার উপদ্রব নিয়ন্ত্রণে ডিএনসিসির পরিকল্পনা তুলে ধরেন। তিনি বলেন,এ রোগ নিয়ন্ত্রণে জনসচেতনতার কোন বিকল্প নাই।

সভায় সিডিসির ফিল্ড মনিটরিং অফিসার ডা. আবুল কালাম এবং এন্টামোলোজিকেল সার্ভিলেন্স এক্সপার্ট জান্নাতুল ফেরদৌস এডিস মশার উৎপত্তিস্থল, বংশবিস্তার, রোগ-জীবাণু বহন, মানুষকে আক্রান্ত করাসহ বিশ্বে ডেঙ্গু রোগের সামগ্রিক চিত্র ও তথ্য-উপাত্ত নিয়ে একটি পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন উপস্থাপন করেন ।

এতে দেখানো হয়, “১২৬টি দেশে ইতিমধ্যে ডেঙ্গু জ্বর ছড়িয়ে পড়েছে। এর ফলে ২৫০ কোটির অধিক মানুষ, অর্থ্যাৎ পৃথিবীর মোট জনসংখ্যার প্রায় ৪০ শতাংশ মানুষ ডেঙ্গুর ঝুঁকিতে রয়েছে।

দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার ১১টি দেশের মধ্যে ১০টি দেশেই ডেঙ্গুর প্রকোপ রয়েছে, এসব দেশে প্রায় ৫২ শতাংশ মানুষ ডেঙ্গুর ঝুঁকিতে রয়েছে”। সিডিসির এ উপস্থাপনায় আরো বলা হয়, “গত আগস্ট মাসে দেশে ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা ছিল সর্বোচ্চ।

সারা দেশে এ এক মাসেই প্রায় ৫৩ হাজার রোগী ভর্তির রেকর্ড করা হয়, যার অধিকাংশই ছিলো রাজধানীতে। জুলাই, আগস্ট ও সেপ্টেম্বর এ তিন মাসে ডেঙ্গু রোগের প্রাদুর্ভাব সর্বাধিক ছিলো এবং ধারণা করা হচ্ছে, এবছরও একই সময়ে এ রোগের প্রাদুর্ভাব বাড়তে পারে। # কাশেম


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


অনুসন্ধান

করোনা আপডেট

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
সুস্থ
মৃত্যু
সূত্র: আইইডিসিআর

বিশ্বে

আক্রান্ত
১১৬,৩৫১,৩৯৬
সুস্থ
৬৫,৮৩০,৬৪৫
মৃত্যু
২,৫৮৫,৯১৯

.