শিরোনাম :
হুজির অপারেশন শাখার প্রধানসহ ৩ আসামি ৩ দিনের রিমান্ডে প্রয়োজনে জমি অধিগ্রহণ করে প্রতিটি ওয়ার্ডে খেলার মাঠ করা হবেঃ মেয়র তাপস স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে ডিআরইউ’র মাসব্যাপী কর্মসূচি সাংবাদিক শাওনের রোগমুক্তির জন্য দোয়া কামনা ৭ মার্চ সারাদেশে ৬৬০ থানায় একযোগে পুলিশের অনুষ্ঠান থাকবে: আইজিপি শিগগিরই ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন সংশোধন হচ্ছে: আইনমন্ত্রী ব্রাহ্মণবাড়িয়া আইনমন্ত্রীর উপস্থিতিতে ২ মেয়র প্রার্থীর সমর্থকদের সংঘর্ষ এবার মৃত ব্যক্তির ব্যাংকের টাকার পাওনাদার নিধারণী মামলা আপিল বিভাগ হাইকোর্টের ঐতিহাসিক রায়: শিশু অপরাধীর সাজা সর্বোচ্চ ১০ বছর বনানী কবরস্থানে এইচ টি ইমাম চিরনিদ্রায় শায়িত কারা অধিদফতরের সাবেক ডিআইজির মামলায় ৩১ মার্চ সাক্ষ্য গ্রহণ এইচ টি ইমাম দেশপ্রেমের উন্মেষ ঘটিয়েছেনঃ মেয়র তাপস অযথা মামলা মোকদ্দমায় অর্থ ব্যয় না করে দেশের উন্নয়নে এগিয়ে আসুন: এলজিআরডি মন্ত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা করোনার ভ্যাকসিন নিলেন পি কে হালদারের বান্ধবীকে পুনরায় ৩ দিনের রিমান্ডে নিয়েছে দুদক ডিএনসিসির ও ডিসিসিআই স্মার্ট সিটির কাজ একত্রে করতে চায় ক্রিকেটার নাসিরের স্ত্রীর সাবেক স্বামীর রিট দায়ের ২০ কোটি টাকায় প্রকৌশলী আশরাফুলের দায়মুক্তি, দুদকের ব্যাখ্যা চায় হাইকোর্ট এইচ টি ইমামের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি-প্রধানমন্ত্রীর শোক এইচ টি ইমামের ইন্তেকাল
শনিবার, ০৬ মার্চ ২০২১, ১০:৪৪ পূর্বাহ্ন

ইরানের এলিট কুদস বাহিনীর প্রধান সোলাইমানি নিহত

দূরবীণ নিউজ ডেস্ক :
শুক্রবার (৩ জানুয়ারি) ভোরে বাগদাদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে মার্কিন ড্রোন হামলায় নিহত হয়েছেন ইরানের এলিট কুদস বাহিনীর প্রধান কাসেম সোলাইমানি। কারণ ২০০৮ সালেই যুক্তরাষ্ট্র কাসিমকে ‘সব চেয়ে বড় শয়তান’ বলে চিহ্নিত করে।

যুক্তরাষ্ট্রের কর্মকর্তারা বলেছেন, প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্দেশেই শীর্ষ পর্যায়ের এই ইরানী জেনারেলকে হত্যা করা হয়েছে। খবর আন্তর্জাতিক বিভিন্ন গণমাধ্যমের ।

২০০৭-০৮ সালে সরাসরি মার্কিন প্রতিরক্ষা দফতরে চিঠি লিখে তিনি বলেছিলেন, ‘ভুলে যাবেন না, এই ভূখণ্ডে এখনো কাসিম সুলেইমানি আছেন। তিনি শুধু ইরান নয়, ইরাক, লেবানন, ইরাক এবং সিরিয়ার পররাষ্ট্র নীতিও দেখভাল করেন। গাজা, ফিলিস্তিন পর্যন্ত তার যাতায়াত আছে।

কাসিম সুলেইমানিকে হত্যা করতে পারা আমেরিকার সাময়িক জয় তো বটেই৷ বহু দিন ধরেই তিনি মার্কিন লক্ষ্য ছিলেন। কিন্তু তার মৃত্যু মধ্যপ্রাচ্যে আমেরিকার প্রভাব বাড়াতে পারবে কি?

বিশেষজ্ঞদের বক্তব্য, অদূর ভবিষ্যতে কী হবে বলা মুশকিল। তবে সুলেইমানির হত্যা সহজে ভুলবে না ইরান এবং পার্শ্ববর্তী রাষ্ট্রগুলির ইরান প্রভাবিত গোষ্ঠীগুলি। আমেরিকার বিরুদ্ধে এর বদলা তারা নেবেই। যা আর প্রক্সি যুদ্ধ নয়, বড় সড় যুদ্ধের সম্ভাবনা তৈরি করবে। আন্তর্জাতিক কূটনীতি তা কী ভাবে থামাতে পারে, সেটাই এখন দেখার।

এই হত্যার কারণ সম্পর্কে পেন্টাগনের একটি বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘জেনারেল সোলাইমানি আমেরিকান কূটনীতিক এবং ইরাকি কর্মকর্তাদের উপর হামলার পরিকল্পনা করে ছিলেন। এছাড়া সোলাইমানি এবং তার এলিট কুদস বাহিনীর বিরুদ্ধে কয়েকশো আমেরিকান ও জোটের সেনা সদস্যকে হত্যা এবং কয়েক হাজার সদস্যকে আহত করার অভিযোগ ছিলো।’

পেন্টাগনের বিবৃতিতে আরো বলা হয়, এই ড্রোন হামালার উদ্দেশ্য ভবিষ্যতের ইরানি হামলার পরিকল্পনা রোধ করা। বিশ্বজুড়ে যেখানেই হোক না কেন যুক্তরাষ্ট্র তার জনগণ ও দেশের স্বার্থ রক্ষার জন্য প্রয়োজনীয় সকল পদক্ষেপ অব্যাহত রাখবে।

ইরানের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্রের অভিযান শুরু হয়ে ছিলো অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞার মাধ্যমে কিন্তু সেটা এখন সামরিক অঙ্গনে সরে এসেছে।

এদিকে আনাদুলোর খবরে বলা হয়েছে, দীর্ঘ দিন ধরেই ইরানের এলিট কুদস বাহিনীর দায়িত্বে ছিলেন সুলাইমানি। ২০ হাজার সদস্য নিয়ে ঘটিত কুদস বাহিনীকে ২০০৭ সালে সন্ত্রাসবাদী দল ঘোষণা করে যুক্তরাষ্ট্র।

২০১৮ সালের জুলাই মাসে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সতর্কতার বিষয়ে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে সোলেমানি বলে ছিলেন, ওয়াশিংটন যদি তেহরানকে হুমকি দেয়, তাহলে কঠিন পরিণতি ভোগ করতে হবে।’

শুক্রবার ভোরে সোলাইমানি হত্যার পর প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প নিজের টুইটার পেইজে ক্যাপশন ছাড়া একটি যুক্তরাষ্ট্রের পতাকার ছবি পোষ্ট করেছেন। #


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *


অনুসন্ধান

করোনা আপডেট

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
সুস্থ
মৃত্যু
সূত্র: আইইডিসিআর

বিশ্বে

আক্রান্ত
১১৫,৬১৯,৭৭৭
সুস্থ
৬৫,৪৭৩,৮৯৩
মৃত্যু
২,৫৬৯,৭৪৬

.